শামীম আহমেদ
……………..
স্টাফ রিপোর্টারঃ
কচুয়ায় সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে হোম কোয়ারেন্টাইন না মানায় কচুয়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের শরীরচর্চা বিষয়ক শিক্ষক এমদাদ উল্লাহকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। শনিবার (৬ জুন) কচুয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট একি মিত্র চাকমা এমদাদ উল্লাহকে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে হোম কোয়ারেন্টাইন না মেনে রাস্তায় অবাধ চলাফেরা করায় দন্ডবিধি ১৮৬০ এর ২৭১ ধারায় ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।
জানা যায়, কচুয়া পৌর এলাকার গরু বাজার সংলগ্ন একটি বাসায় এমদাদ উল্লাহ তাঁর পরিবার নিয়ে বসবাস করে। গত ৩১ মে শারিরীক অবস্থার অবনতি দেখা দিলে এমদাদ উল্লাহ’র এক শালিকা করোনা ভাইরাস পরীক্ষার জন্য কচুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা দিয়ে স্বামীর বাড়ি ডুমুরিয়া মজুমদার বাড়িতে চলে যায়। এবং ৩ জুন তারিখ রিপোর্ট আসে তিনি করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত (কোভিড-১৯ পজিটিভ)। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত নিশ্চিত হওয়ার পর শালিকা কচুয়া পৌর এলাকার গরু বাজার সংলগ্ন এমদাদ উল্লাহ মাষ্টারের বাসায় চলে আসেন। সংবাদ পেয়ে কচুয়া থানা পুলিশ এসে ওই বাসাটি লকডাউন করে দেয়। এবং করোনায় শালিকার সংস্পর্শে আসা সকলকে আগামী ১৪দিন হোম কোয়ারেন্টাইন এ থাকার নির্দেশনা প্রদান করা হয়। সে হিসেবে ওই বাসায় বসবাসরত সকলে আগামী ১৭ জুন পর্যন্ত হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার কথা। পরবর্তীতে তার শালিকা ঢাকায় আইসোলেশনে চলে যাওয়ার পর গত ৫জুন শুক্রবার লকডাউন অমান্য করে হোম কোয়ারেন্টাইন না মেনে এমদাদ উল্লাহ কচুয়া বাজারে অবাধ চলাফেরা করাসহ জুম্মার নামাজ জামাতে আদায় করায় বিষয়টি স্থানীয়দের দৃষ্টি আকর্ষন করে। এবং পরবর্তীতে সংবাদ পেয়ে কচুয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) একি মিত্র চাকমা সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে এমদাদ উল্লাহকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন। এবং ১১দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থেকে বাসা থেকে বের না হওয়ার কঠোর নির্দেশনা প্রদান করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here