21 May, 2020

ডেস্ক রিপোর্ট ● ক’রোনার বিস্তার ঠে’কাতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা অংশে ঢাকাগামী অতিপ্রয়েজনীয় যানবাহন ছাড়া বিভিন্ন ব্যক্তিগত যানবাহন কুমিল্লাতেই ফেরত পাঠিয়ে দিচ্ছে হাইওয়ে পু’লিশ।

আসন্ন ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে সরকার রাজধানী ঢাকা থেকে বের হওয়া এবং প্রবেশের ওপর নি’ষেধাজ্ঞা দিয়েছে; তবু ঠেকানো যাচ্ছে না মানুষকে। এমন পরিস্থিতিতে মাঠে নেমেছে পু’লিশ।

জানা গেছে, বিভিন্ন মালবাহী যানবাহনের পাশাপাশি ব্যক্তিগত যানবাহন, অটোরিক্সা, ইজিজবাইক, রিক্সা কিংবা মোটরসাইকেল সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করে চট্টগ্রাম বিভাগের বিভিন্ন জে’লায় আসার চে’ষ্টা করছে।

বুধবার থেকে মহাসড়কে হাইওয়ে পু’লিশ অনেকটা ক’ঠোর অবস্থান গ্রহণ করেছে। ঢাকা থেকে কুমিল্লা হয়ে চট্টগ্রাম বিভাগের যেকোন গন্তব্যে যাওয়া ব্যক্তিগত যানবাহনসহ যাত্রীবাহী অন্যান্য বাহন অতিপ্রয়োজনীয় না হলে মহাসড়কে বসানো ৫টি চেকপোষ্ট থেকে সেগুলো আ’টকে দেওয়া হচ্ছে।

তবে মালবাহী যানবাহনগুলো যেতে দেয়া হচ্ছে গন্তব্যে। হাইওয়ে ময়নামতি ক্রসিং থা’নার ভারপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা মো. সাফায়েত হোসেন জানান, দেশের প্রধান জাতীয় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা অংশে রয়েছে প্রায় একশ’ কিলোমিটার অংশ।

এই মহাসড়ক পথ হয়ে চট্টগ্রাম বিভাগের ১০ টি জে’লার বিভিন্ন জনপদে যাতায়াত করে অসংখ্য মানুষ। আসন্ন ঈুল ফিতরকে সামনে রেখে তাই ঘরমুখো মানুষের চা’প বাড়ছে।

তিনি জানান, ক’রোনার বিস্তার ঠে’কাতে মানুষ যাতে প্রবেশ বা বের হতে না পারে সেজন্য কুমিল্লার দাউদকান্দি টোলপ্লাজা, ইলিয়টগঞ্জ, আলেখারচর, মিয়াবাজার ও চৌদ্দগ্রাম এলাকায় চেকপোষ্ট বসিয়েছে হাইওয়ে পু’লিশ।

এসব চেকপোষ্টে দিনরাত ২৪ ঘন্টা ত’ল্লাশিসহ পর্যবেক্ষণ কার্যক্রম চলছে। ঈদের পরও সরকারি নি’র্দেশনা অনুযায়ী এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here