ডেস্ক রিপোর্ট ● কুমিল্লায় প্রাণঘা’তী ক’রোনা ভা’ইরাসে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আ’ক্রান্তের সংখ্যা। প্রতিদিনই দীর্ঘ হচ্ছে মৃ’ত্যুর মিছিল। ইতিমধ্যে জে’লায় দেড় হাজার ছাড়িয়ে গেছে ক’রোনায় আ’ক্রান্তের সংখ্যা। এখন পর্যন্ত মা’রা গেছেন ৪৫ জন।

মঙ্গলাবার ভা’ইরাসটিতে কুমিল্লা জে’লায় নতুন করে ৫৮ জন আ’ক্রান্ত হয়েছেন। এনিয়ে জে’লায় মোট আ’ক্রান্তের সংখ্যা এখন ১ হাজার ৫১২ জন। সবচেয়ে বেশি আ’ক্রান্ত কুমিল্লা নগরীতে।

কুমিল্লায় গেল ২৪ ঘণ্টায় ক’রোনা ভা’ইরাসের উপসর্গ নিয়ে শহরে তিনজন ও দেবিদ্বারে একজনের মৃ’ত্যু হয়েছে। তাই কুমিল্লা নগরীর পরিস্থিতি নি’য়ন্ত্রনে আনতে নতুন সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশা’সন।

কুমিল্লা জে’লা প্রশা’সনের সিদ্ধান্ত মোতাবেক কুমিল্লাতে সিএনজিকে প্রাইভেট সার্ভিস ঘোষণা করা হয়েছে। সিএনজিতে একজনের বেশি উঠা যাবে না, পরিবারের সদস্য হলে দুইজন উঠতে পারবে। এছাড়া ব্যাটারি চালিত অটোরিক্সায় দুইজনের বেশি উঠা যাবে না।

দেশের এই পরিস্থিতিতে সং’ক্রমন প্রতিরো’ধে এমন ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন কুমিল্লা জে’লা প্রশা’সনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবু সাঈদ। তিনি বলেন জে’লা প্রশা’সক আবুল ফজল মীরের নির্’দেশক্রমে প্রথমে দুই একদিন সচেতন করবো, তারপর আমরা আ’ইনি ব্যবস্থা নিব।

তিনি আরও বলেন, বুধবার (১০ জুন) থেকে পরবর্তী নি’র্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত কোন সিএনজি পরিবারের সদস্য ব্যতীত একজনের বেশি যাত্রী পরিবহন করতে পারবে না। কেননা সিএনজি মূলত একটি প্রাইভেট সার্ভিস।

তাই সিএনজি যাত্রীকে সম্পূর্ণ ভাড়া পরিশো’ধ করতে হবে। ইজিবাইকগুলো দুই সিটে দুইজন। টমটমের বিষয়ে সিদ্ধান্ত শীঘ্রই আসছে। আমরা দুই একদিন সবাইকে সচেতন করবো, তারপর সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের জন্য কাজ করবো। সবাইকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার আহবান করছি।

যেহেতু সবাই শেয়ারিং এ চলতে অভ্যস্থ, তাই সম্পূর্ণ ভাড়া সবার জন্য কঠিন। তারপরও ক’রোনা সং’ক্রমণ প্রতিরো’ধে নি’র্দেশনা মেনে চলার অ’নুরোধ করছি।

সিএনজি অটোরিক্সায় যাত্রী পরিবহনে স্বাস্থ্য বিধি মানা হচ্ছে না বলে কুমিল্লাবাসী বেশ কয়েকদিন ধরে অ’ভিযোগ করে আসছে। তাই এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে প্রতিটি মানুষকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে সচেতন হয়ে এগিয়ে আসতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here