নিউজ ডেস্ক: কৃষকের ধান কাটতে গিয়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়েছে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদল ও স্বেচ্ছাসেবক দল। বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) উপজেলার কায়েতপাড়া ইউনিয়নের নগরপাড়া বিলের দু’জন কৃষকের ধান কাটাতে গেলে এই সংঘর্ষ বাঁধে।

জানা গেছে, চলতি বোরো ধানের মৌসুমে করোনা সংকটের কারণে কোথাও ধান কাটার শ্রমিক পাওয়া যাচ্ছিল না। এ অবস্থায় সারাদেশে কৃষকের ধান কেটে দিয়ে ব্যাপক প্রশংসা পাচ্ছিল ছাত্রলীগসহ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সহযোগী ও অঙ্গ সংগঠন। অপরদিকে এমন অবস্থায় তিরস্কারের শিকার হচ্ছিল বিএনপি ও ছাত্রদল। তাই মুখ রক্ষা করতে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে কৃষকদের ধান কাটতে গিয়ে ফটোসেশন করছিল উপজেলা ছাত্রদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীরা।

ছবি তোলার সময় স্বেচ্ছাসেবক দলের রিফাত মাঝি হাঁচি দিলে বাকি সবার মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় ছাত্রদলের সুজন রিফাতকে ঘুষি মারলে সংঘাতের সূচনা হয়। এতে কৃষকদের ফসলের ক্ষতি হয়। তারা বলছেন, বিএনপির লোকজন ধান কাটার নামে আমাদের পাকা ধানে মই দিয়ে গেলো।

ধান কাটতে আসা উপজেলা ছাত্রদল নেতা আবু মোহাম্মদ মাসুম বলেন, ‘আমরা আগে থেকেই বলেছি সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে। কিন্তু ছবি তোলার সময় স্বেচ্ছাসেবক দল তা করেনি। এতে আমাদের কর্মী সুজন কিছু রেগে গিয়েছিল। এটা তেমন কিছু না।’

উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা আলী হোসেন জানান, ছাত্রদল যা করেছে, তা নিতান্তই অন্যায়। একজন লোক হাঁচি দিতেই পারে। তাই বলে তাকে আঘাত করতে হবে। আমরা ছাত্রদলের ব্যাপারে উপজেলা বিএনপিকে জানিয়েছি

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here