চাঁদপুর শহরে নূরুল আমিন (৪৫) নামে এক ব্যক্তি জ্বরে অসুস্থ হয়ে পড়ায় স্ত্রীসহ স্বজনরা চিকিৎসার জন্যে নিয়ে আসেন চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে। ৭ জুন রোববার তখন সময় বেলা পৌনে ১টা। অটোবাইকের পেছনের সিটে স্ত্রীর সাথে বসা রোগীটি।

কিছুক্ষণের মধ্যে মুখে লালা বের হয়ে দফাতে দফাতে স্ত্রীর কাঁধেই প্রাণ গেলো লোকটির। করোনা রোগী মনে করে আতঙ্কে ছিলো সবাই। হাসপাতালে জরুরি বিভাগে নেয়ার জন্যে কেউ এগিয়ে আসেনি।

এ দৃশ্য দেখে হাসপাতালের স্বাস্থ্যকর্মী আল-আমিন ছুটে এসে সহকর্মীকে ট্রলি নিয়ে আসতে বললেন। ট্রলিও আনা হলো, কিন্তু সেটিরও দুটি চাকা ভাঙ্গা।

এ পরিস্থিতির মধ্যে ধরাধরি করে অটো থেকে ট্রলিতে নামানো হলেও, ততোক্ষণে তিনি বেঁচে নেই তথা তাকে মৃত ঘোষণা দিলেন কর্মরত চিকিৎসক। স্ট্রোক করে লোকটির মৃত্যু হয়েছে বলে কর্মরত চিকিৎসক জানালেন।

হাসপাতালের বারান্দায় ট্রলিতে স্বামীর নিথর দেহ নিয়ে স্ত্রীর সে কী কান্না। দূর থেকে অনেকেই তা প্রত্যক্ষ করেন। মৃত নূরুল আমিন চাঁদপুর শহরের প্রফেরপাড়া রহিম খানের ছেলে। বিপণীবাগ স্টিলের দোকানদারি করতেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here