দক্ষিণ উপজেলার নারায়নপুর বাজারের দু’ ব্যবাসায়ী বাড়ী ফেরার পথে ছিনতাইকারীদের ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হয়েছে। এসময় তাদের সাথে থাকা নগদ টাকাসহ মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নিয়ে গেছে। গত ৯ জানুয়ারি রাত সাড়ে ৯ টায় উপজেলার কাজিয়ারা-মেহেরন সীমানায় এ ছিনতাইয়ের ঘটনা ঘটেছে।জানা যায়,নারায়নপুর বাজারের মোবাইলের লোড ও বিকাশ ব্যবসায়ী শ্রী কৃষ্ণ দাস (৪০) এবং মেডিসিন ( গাজী ফার্মেসী) ব্যবসায়ী পাসনজিৎ দাস(২৮) রাত ৯ টায় তাদের দোকান বন্ধ করে মেহেরন গ্রামের নিজ বাড়ীতে হেঁটে যাচ্ছিল।কাজিয়ারা ও মেহেরন গ্রামের মাঝামাঝি গেলে পথিমধ্যে ৩/৪ জন অপরিচিত যুবক তাদেরকে আক্রমন করে। একপর্যায়ে যুবকরা অস্রের ভয়ভীতি দেখিয়ে তাদের সাথে থাকা টাকা ও মোবাইল সেটগুলো নিয়ে যায়। ছিনতাইকারীদের সাথে দস্তাদস্তি করলে শ্রীকৃষ্ণ দাস ও প্রসনজিৎ দাসের মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুড়ি ও রড দিয়ে আঘাত করে। বাঁচাও বাঁচাও বলে ডাকচিৎকার দিলে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে ছিনতাইকারীরা পালিয়ে যায়। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় দুজনকে উদ্ধার করে নারায়নপুর টাওয়ার হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করায় এবং ডাঃ মহিবুর রহমান শাহদাতের মাধ্যমে চিকিৎসা সেবা নেয়। এলাকাবাসী ৯৯৯ নম্বরে ফোন করলে মতলব দক্ষিণ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যান। আহত শ্রীকৃষ্ণ দাস বলেন,তার সাথে থাকা প্রায় সাড়ে ৪ লাখ টাকা ও কয়কটি লোডের মোবাইল ও বিকাশ এজেন্টদের মোবাইল ছিনিয়ে নেয় । মেডিসিন ব্যবসায়ী পাসনজিৎদাস বলেন তার সাথে থাকা ৬৫ হাজার টাকা নিয়ে গেছে ছিনতাইকারীরা। তবে অন্ধকারের কারনে কাউকেই চিনতে পারেনি। নারায়নপুর বাজারের একাধিক ব্যবসায়ী ও এলাকাবাসীর অভিযোগ মেহেরন ও কাজিয়ারা এলাকার রাস্তায় রাতে প্রায় এ ধরনের ঘটনা ঘটে। মতলব দক্ষিণ থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মহিউদ্দিন মিয়া বলেন, ৯৯৯ এর মাধ্যমে সংবাদ পাওয়ার সাথে সাথে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এখন থেকে ঐ এলাকায় জনগনের জানমালের নিরাপত্তার জন্য পুলিশের টহল জোরদার করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here