নিউজ ডেক্সঃ

বাড়ির পাশের সড়ক প্রশস্ত করার খবর শুনে সরকারি গাছ বিক্রি করে দিয়েছেন এক ব্যক্তি। এর মধ্যে একটি গাছ কাটাও হয়েছে। পরে খবর পেয়ে প্রশাসনের লোকজন গিয়ে গাছ কাটা বন্ধ করে দিয়েছে। সরকারি গাছ কাটার কারণ জানতে চাইলে ওই ব্যক্তি দাবি করেন, বাবার জন্য  খাট বানাতে গাছ কাটে তিনি।

ঘটনাটি ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার রাজিবপুর ইউনিয়নের উজানচর নওপাড়া (শিমারবুক) গ্রামে। স্থানীয়দের অভিযোগ, বাবার জন্য খাট নয়; টাকার জন্য সরকারি গাছ বিক্রি করেছেন স্বপন মিয়া।

উপজেলার উচাখিলা-মরিচারচর সড়কের পাশে উজানচর নওপাড়া গ্রাম। সড়কটি ইতোমধ্যে এলজিইডি থেকে সড়ক ও জনপথ বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ঈশ্বরগঞ্জ থেকে মরিচারচর সড়কটি প্রশস্ত করার কাজ এরই মধ্যে শুরু হয়েছে।

সড়ক প্রশস্ত করার খবরে সড়কের উজানচর নওপাড়া গ্রামের আবদুল হাইয়ের ছেলে বাড়ির পাশে গাছ কাটতে শুরু করেন। রোববার একটি কাঁঠাল গাছ কেটে ফেলা হয়েছে। খবর পেয়ে স্থানীয় ভূমি সহকারী কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে গিয়ে গাছ কাটতে বাধা দেন।

গ্রামবাসী জানান, স্বপন ছয়টি কাঁঠাল গাছ বিক্রি করে দিয়েছিলেন। পরে প্রশাসনের লোকজন এসে তা বন্ধ করেন। রোববার দুপুরে ঘটনাস্থলে গেলে দেখা যায়, রাস্তার পাশে পড়ে রয়েছে কাটা গাছ।

স্বপন মিয়ার ভাষ্য, গাছগুলো বিক্রি করিনি। বাবার জন্য খাট বানাতে সরকারি গাছ কেটেছি। পরে নায়েব এসে নিষেধ করায় কাটা বন্ধ রেখেছি।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাঈদা পারভীন বলেন, সড়কের পাশের গাছ কেটে ফেলায় নায়েব পাঠিয়ে গাছ জব্দ করে ভূমি অফিসে আনতে বলা হয়েছে। এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here