নিউজ ডেক্সঃ

সিলেটে বেনামি চিঠিসহ কাফনের কাপড় পাঠিয়ে মোহাম্মদ আমিন উদ্দিন নামের এক যুবককে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছে। গত ২ সেপ্টেম্বর সকালে তার বাড়ির পাশে কাফনের কাপড় মোড়ানো একটি চিঠিতে এ হুমকি প্রদান করা হয় বলে দাবি করেন আমিন। গত ৫ সেপ্টেম্বর থানায় জিডি করলেও খবরটি দেরিতে গণমাধ্যমকে অবহিত করা হয়েছে।
হুমকির শিকার যুবক সিলেটের কানাইঘাট উপজেলার ৭ নং দক্ষিণ বাণীগ্রাম ইউনিয়নের নয়াগ্রাম হালাবাদী গ্রামের শামস উদ্দিনের ছেলে।
বেনামি চিঠিতে আমিন উদ্দিনকে সব সময় কাফনের কাপড় সঙ্গে রাখার কথা বলা হয়। যে কোনও সময় তাকে লাশ হতে হবে এবং তার লাশ কেউ খুঁজে পাবে না বলে হুমকি দেওয়া হয়েছে। ওই চিঠিতে জনৈক সিরাজ মাস্টারকে হত্যা পরিকল্পনার সঙ্গে আমিন উদ্দিন জড়িত বলেও অভিযোগ করা হয়েছে। চিঠির বিষয়বস্তু অনুযায়ী, প্রকাশ্যে পরিচয় না দিলেও কাফনের কাপড়ের প্রাপক ও প্রেরক একই এলাকার ব্যক্তি তেমন ইঙ্গিত মেলে। যদিও আমিন উদ্দিন দাবি করেছেন কে তাকে এ কাপড় পাঠিয়েছে তাকে তিনি চেনেন না। তবে জনৈক ব্যক্তিকে পাঠানো হাতে লেখা চিঠির বক্তব্যে এটাও পরিষ্কার, তারা পরস্পর কোনও একটি বিষয়ে আলোচনা করছিলেন এব সেখানেই তাদের মতবিরোধ ঘটে। সে আলোচনা সাক্ষাতে হয়নি এমন দাবি করেছেন আমিন। তার ভাষ্যমতে, আলোচনা হয়েছে ফেসবুকে এবং যার সঙ্গে হয়েছে সেই আইডিধারী ব্যক্তিকে তিনি প্রকাশ্যে চেনেন না। ওই আইডিধারীর নাম হানিফ আসাদী।
জানা গেছে, এ ঘটনায় গত ৫ সেপ্টেম্বর আমিন উদ্দিন নিজেই কানাইঘাট থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি নম্বর- ২৫১) দায়ের করেন।
জিডিতে তিনি উল্লেখ করেন, গত ২৮ আগস্ট হানিফ আসাদী নামে ফেসবুকের একটি আইডি থেকে তার নামে বিভিন্ন মিথ্যা মন্তব্য করে একটি পোস্ট করা হয়। সেই সাথে আবুল বাশার নামের আরেক আইডি থেকে পোস্টটি শেয়ার করা হয়। পরবর্তীতে তিনি হানিফ আসাদী নামের আইডির ব্যবহারকারী সম্পর্কে খোঁজ নিলেও এ বিষয়ে নিশ্চিত হতে পারেননি। এরপর গত ২ সেপ্টেম্বর তার বাড়িতে পাঠানো কাফনের কাপড়সহ চিঠি দিয়ে হত্যার হুমকির পর হানিফ আসাদী নামের আইডির ব্যবহারকারীই এই হুমকি দিয়েছে বলে সন্দেহ পোষণ করছেন তিনি।
এ বিষয়ে জিডির তদন্ত কর্মকর্তা এসআই রাম চন্দ্র দেব বলেন, আমিন উদ্দিন নামের এক যুবক থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছেন। তদন্তের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here