চাাঁদপু মতলব দক্ষিণে সম্পত্তিগত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় বীর মুক্তিযোদ্ধাসহ ৭ জন আহত হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
আহতদের মধ্যে গুরতর অবস্থায় নজরুল ইসলাম প্রধান নামে একজন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
গত ২২ নভেম্বর সকালে উপজেলার নায়েরগাঁও উত্তর ইউনিয়নের নন্দিখোলা গ্রামের আজিজ প্রধানীয়া বাড়িতে এ হামলার ঘটনা ঘটে।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, উপজেলার নায়েরগাঁও উত্তর ইউনিয়নের নন্দিখোলা গ্রামের আজিজ প্রধানীয়া বাড়ির মৃত রুহুল আমিন প্রধানের ৬ পুত্র রেখে প্রায় ১৮ বছর পূর্বে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুর পর তার রেখে যাওয়া সম্পত্তি সকল ছেলে সমবন্টন করে ভোগদখল করে আসছেন। এরই মধ্যে রুহুল আমিনের তৃতীয় ছেলে ফেরদাউস কবির গত ৪ বছর আগে মৃত্যুবরণ করেন। তারপর থেকে অযৌক্তিকভাবে ফেরদাউস কবিরের ছেলে মো. শাকিল প্রধান জোরপূর্বক তার অন্য চাচা-জেঠাদের সম্পদ ভোগদখল করার চেষ্টা করেন। এরই সূত্র ধরে গত ২২ নভেম্বর বাড়ির পাশে থাকা একটি ডোবা থেকে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে তার জেঠা খলিলুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা হুমায়ুন কবির, চাচা নজরুল ইসলাম, আরিফ হোসেন প্রধান, জেঠাত ভাই মানিক প্রধান, চাচি সাদিয়া আক্তারকে বহিরাগত লোকজন নিয়ে মারধর করে গুরতর আহত করেন। পরে স্থানীয় লোকজন এসে তাদের উদ্ধার করে প্রথমে মতলব দক্ষিণ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে অবস্থার বেগতিক দেখে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়।
আহতদের মধ্যে অবস্থার অবনতি দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য গুরতর আহত অবস্থায় নজরুল ইসলামকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। বর্তমানে তিনি ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
আহত বীরমুক্তিযোদ্ধা হুমায়ুন কবির প্রধান জানান, আমাদের পৈত্রিকসূত্রে মালিকাধীন ডোবা থেকে মাছ ধরতে গেলে আমার ভাতিজা শাকিল প্রধানের নেতৃত্বে তানিম প্রধান, শাকিলের ভাগিনা লিমন, মা লিলি বেগম এবং তার বোন পুতুল আক্তারসহ বহিরাগত প্রায় শতাধিক লোকজন নিয়ে আমাদের উপর দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র দিয়ে হামলা চালিয়ে আমাকে, আমার বড় ভাই খলিলুর রহমান, ছোট ভাই নজরুল ইসলাম, আরিফ হোসেন প্রধান, ভাতিজা মানিক প্রধান ও ছোট ভাইয়ের বউ সাদিয়া আক্তারকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক আহত করেন। পরে আমাদের ডাকচিৎকারে আশেপাশের লোকজন এসে আমাদেরকে উদ্ধার করে হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠায়। বর্তমানের আমার ছোট ভাই নজরুল ইসলাম প্রধান ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।
এ ঘটনায় বীরমুক্তিযোদ্ধা হুমায়ুন কবির প্রধান বাদী হয়ে মতলব দক্ষিণ থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং ১৩, তারিখ- ২৩/১১/২০২০খ্রিঃ।
মতলব দক্ষিণ থানার এসআই রুহুল আমিন জানান, হামলার ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর মধ্যে মামলার প্রধান আসামী মো. শাকিল প্রধানকে আটক করে চাঁদপুর আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। বর্তমানে মামলাটি তদন্তনাধীন রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here