চাঁদপুর মতলব দক্ষিণ উপজেলার ব্যস্তময় দুটি  ইউনিয়ন নায়েরগাঁও উত্তর ও দক্ষিণ ।

তবে এই ব্যাস্ত ময় এলাকায় করোনা ভাইরাসের কারনে স্কুল কলেজ বন্ধ থাকায় বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন কে পুঁজি করে দিন দিন ভয়ঙ্কর রূপ নিচ্ছে উঠতি কিশোরদের ‘গ্যাং কালচার’। স্কুর-কলেজের গন্ডি পেরোনোর আগেই নায়েরগাঁও উত্তর এবং দক্ষিণে , কিশোরদের একটা অংশের বেপরোয়া আচরণ এখন পাড়া-মহল্লাসহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে আতঙ্কের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এক সময় স্কুলে ও কলেজের সামনে দাঁড়িয়ে ইভটিজিং, নিজেদের মধ্যে মারধরে সীমাবদ্ধ থাকলেও সম্প্রতি দুইটি ইউনিয়নের হাট বাজার,দোকানপাট ও মহল্লার মোরকে  ঘিরে বেশ কয়েকটি কিশোর গ্যাং সক্রিয় হয়ে উঠেছে।

শুনছেনা কারোর কোন কথা মানছেনা কারোর কোন বাধা। রাজনীতির বড় ভাইদের ছত্রছায়ায় হয়ে উঠেছে মাদকাসক্ত, মানুষদের ভয়-ভীতি এবং মারামারি তো আছেই এমনকি সোশ্যাল মিডিয়ায় (ফেসবুক) বিভিন্ন ধরনের উস্কানিমূলক কথাবার্তা পোস্ট করে সমাজে অরাজকতা সৃষ্টি করে।

সুশীল সমাজ এদের নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন এদের জন্য আমরা ঠিকমতো চলাফেরা করতে পারি না !নাই কোন মান্য কিছু বলতে গেলে উল্টো জারি মারে । ওদেরকে ভুলভাল বুঝিয়ে ইউনিয়নের কিছু রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব তাদের নিজেদের কাজে লাগানোর জন্য এই ধরনের কর্মকাণ্ড করতে বাধ্য করে।

ওদের ভবিষ্যত কি হবে যদি বুঝতো তাহলে এ ধরনের কর্মকাণ্ডে কখনো জড়িত হত না। এর জন্য দায়ী তাদের বাবা মা মুখোশের আড়ালে সমাজের ভদ্র কিছু লোক ও রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব।

আমরা এদের থেকে পরিত্রান পেতে উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

মতলব দক্ষিণ থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব স্বপন কুমার আইচের কাছে এই বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি নায়েরগাঁও দিগন্তকে বলেন এ বিষয়ে আমরা আগে থেকেই অবহিত হয়েছি এই দুইটি ইউনিয়নের কিশোর গ্যাং এর বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে আমাদের কাছে তালিকা তৈরি করে অতি শীঘ্রই আমরা এদেরকে আইনের আওতায় আনবো এই বিষয়ে মতলব থানার সকল পুলিশ সদস্য কঠোর ভাবে পদক্ষেপ নিবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here