নারায়ণগঞ্জ থেকে মতলবের উদ্দেশ্যে বৃহস্পতিবার রাত ৯টায় ছেড়ে আসা এমভি মাকবুল-২ লঞ্চে রাত অনুমানিক পৌনে ১১ টার দিকে ষাটনল ঘাটের কাছাকাছি এলাকায় ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ডাকাতদল অস্ত্রের মুখে চালককে জিম্মিকরে মাকবুল লঞ্চের ৫ শতাধিক যাত্রীর সর্বস্ব লুটে নেয় বলে জানান লঞ্চের যাত্রী মতলব উত্তর উপজেলার আনন্দ বাজারের মোবাইল ব্যবসায়ী কামরুজ্জামান সুমন।

জানা যায়, লঞ্চটি নির্দষ্ট সময়ের ১৫ মিনিট পরে গজারিয়া ঘাটে ভীড়ে। গজারিয়া ঘাটে ভিড়ার ১০ মিনিট পূর্বে স্পিডবোটে করে একজন লোক লঞ্চে উঠে। গজারিয়া ঘাট ছাড়ার বেশ কিছুক্ষন পরেই ২ টি স্পিডবোটে করে ১০/১২ জনের ডাকাত দল লঞ্চে উঠে ফাঁকা গুলি ছুড়ে যাত্রীদের মাঝে আতংক সৃষ্টিকরে যাত্রীদের মোবাইল, নগদ টাকা, মহিলাদের স্বর্নালংকার, যাত্রীদের সাথে থাকা মালামালসহ সর্বস্ব লুটে নেয়। এভাবে ৩০ মিনিটের অধিক সময় নিয়ে ডাকাতি সম্পন্ন করে। আতঙ্কিত যাত্রীরা চিৎকার করলে ডাকাতরা ফাঁকা গুলি ছোড়ে ষাটনল ঘাটের খানিক আগে ডাকাতদল লঞ্চ থেকে নেমে স্পিডবোটে করে চলে যায়।

প্রতি বৃহস্পতিবার রাতের এই লঞ্চে চাকুরীজীবিরা বেশী যাতায়াত করে বিধায় লঞ্চে আজ অতিরিক্ত যাত্রী ছিল বলে জানান লঞ্চের চুকান সবুজ মিয়া। লঞ্চের নীচতলায়, ক্যাবিনে, ডেক ও ছাদের উপরে আজ অনেক যাত্রী ছিল। লঞ্চটি নারায়নগঞ্জ ঘাট থেকে প্রতিদিন রাত ৯ টায় গজারিয়া, ষাটনল, মোহনপুর, এখলাছপুর, আমিরাবাদ লঞ্চঘাট হয়ে মতলবে আসে।

এ বিষয়ে মতলব উত্তরের মোহনপুর নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মোহাম্মদ হোসেন সরকার ডাকাতির ঘটনায় জড়িতদের আটকের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বলে নায়েরগাঁও দিগন্তকে জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here