Home জাতীয় অপরাধ মতলবে কাচিয়ারা স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব অবহেলা ও অনিয়মের কারনে...

মতলবে কাচিয়ারা স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব অবহেলা ও অনিয়মের কারনে কার্যক্রম ব্যহত হচ্ছে অভিভাবক মাঝে চরম ক্ষোভ

336
0

নিজস্ব প্রতিনিধি: মতলব দক্ষিণ উপজেলার ১নং নায়েরগাঁও উত্তর ইউনিয়নে অবস্থিত ঐতিহ্যবাহী কাঞ্চনমালা দিঘীর পাড়ে কাচিয়ারা স্কুল এন্ড কলেজ। এ প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক আব্দুল করিমের দায়িত্বহীনতা, অনিয়ম এবং স্বেচ্ছাচারিতার কারনে বিদ্যালয়ের কার্যক্রম ব্যহত হচ্ছে। সম্প্রতি এ স্কুল এন্ড কলেজের ১৮ জন শিক্ষক প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রদান করেছে বলে শিক্ষকরা জানান। অপরদিকে, স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীদের অভিভাবক ও এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিদের মাঝে ও অভিভাবকদের মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করে। সরজমিনে তদন্ত করে আরো জানা যায় প্রধান শিক্ষক আবদুল করিম কে প্রত্যক্ষভাবে সেল্টার দিচ্ছে এসব অপকর্ম ও সেচ্ছাচারিতা ও বিদ্যালয়ের গুরুত্বপূর্ণ কাগজ ও নথিপত্র তছরুপ করছেন ইউনিয়ন যুবলীগের সাবেক আহবায়ক রাছেল পাটোয়ারী নিলয়,আবুল হোসেন পাটোয়ারী, ভুয়া সভাপতি কামাল সর্দার, আলাউদ্দিন পাটোয়ারী ও মজিবুর রহমান গং।

সরজমিনে গিয়ে জানা যায় : গত (৫ জানুয়ারী) সকাল ১০ ঘটিকা সময় বিদ্যালয় মিলনায়তনে এলাকার সর্বস্তরের মানুষের উপস্থিতিতে স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক আব্দুল করিমের দায়িত্ব অবহেলা, অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারীতার প্রতিবাদে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার আলহাজ¦ মোঃ ফজলুল হকের সভাপতিত্বে ও শাহ আলম প্রধানের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন, স্কুল এন্ড কলেজের সাবেক সভাপতি মোঃ শাহ জাহান সরকার, বিদ্যালয়ের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক আব্দুর রাজ্জাক পাটোয়ারী, বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা আলহাজ¦ মকবুল হোসেন মোল্লা, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল খায়ের, চষই উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি আবুল কাশেম সওদাগর, সমাজসেবক ডাঃ নুরুল ইসলাম, জাহাঙ্গীর পাটোয়ারী, আনাস সরদার, আব্দুর রশিদ পাটোয়ারী, প্রভাষক আবুল হোসেন সরকার, ম্যানেজিং কমিটির সদস্য সোহেল রানা, মহসিন প্রধান, খালেক মিয়াজীসহ শিক্ষার্থীদের অভিভাবকবৃন্দ। বক্তারা সভায় ক্ষোভের সহিত বলেন, এ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নিতে হবে।

স্কুল এন্ড কলেজের যে এডহক কমিটি গঠন করা হয়েছে, তা বিধি মোতাবেক নয়। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নিজের ইচ্ছামত এই কমিটি গঠন করেছে। এই এডহক কমিটি বাতিল করতে হবে এবং বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে অপসারন করতে হবে। অন্যথায় কঠোর কর্মসূচী ঘোষনা করা হবে। এ সময় বিদ্যালয়ের ২শতাধিক অভিভাবক ও গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। এদিকে, স্কুল এন্ড কলেজের সহকারী প্রধান শিক্ষক মোঃ নাসির উদ্দিন জানান, দীর্ঘ কয়েকমাস যাবত করোনারা অজুহাত দেখিয়ে প্রধান শিক্ষক স্কুলে আসেন না। এতে করে প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রম পরিচালনায় ব্যহত হচ্ছে। আমরা কোন সিদ্ধান্ত নিতে পারছি না। শিক্ষার্থীদের অভিভাবকরা বিদ্যালয়ে এসে কোন তথ্য জানতে চাইলে আমরা কোন সঠিক জবাব দিতে পারিনা। প্রধান শিক্ষককে ফোন করলে তিনি ফোন রিসিভ করেন না। এ অবস্থায় আমরা আছি। এখন ৬ষ্ঠ শ্রেনির ভর্তির কার্যক্রম চলছে। তাও সঠিকভাবে করতে পারছি না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here