এক রাতের আগুনে পুড়ে ছাঁই হয়ে গেছে যুবকের বেঁচে থাকার স্বপ্ন। বেকারত্ব জীবন থেকে যে স্বপ্ন নিয়ে শুরু করেছিলেন ব্যবসা,নিষ্ঠুর আগুনে তা পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

২ নভেম্বর রোববার মধ্যরাতে মতলব দক্ষিণ উপজেলার নারায়ণপুর ইউনিয়নের পয়ালি বাজারে সজীব প্রধানীয়ার দোকানে এক ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের এ ঘটনা ঘটে।

এতে সজিবের একটি সেমিপাকা বিল্ডিংয়ের ফার্মেসির ঔষধ,কম্পিউটার, ডাচ্ বাংলা ব্যাংকের বুথ, নগদ টাকা মুহূর্তে পুরে সব ছাই হয়ে যায়। আগুনে তার প্রায় ২২ লাৃখ ৫৫ হাজার টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গেছে। এর মধ্যে নগদ নগদ ৩ লাখ ৮০ হাজার টাকা রয়েছে।

জানা যায়,পয়ালী বাজারের ওই দোকান মালিক সজীব প্রধানীয়া প্রতিদিনের মতো দোকান বন্ধ করে রাত ১২ টার সময় বাড়িতে যায়। জনেক পথচারী রাত পৌনে দুইটার দিকে ওই দোকান থেকে ধোয়াসহ আগুনের শিখা দেখতে পেয়ে ডাক চিৎকার দেয়। তখন বাজারের ও আশপাশের লোকজন ছুটে আসে। ঘটনাস্থল থেকে তাকে ফোনে বিষয়টি জানানো হয়।

এ সময়ে ফায়ার সার্ভিস ও লোকজনের ঘন্টাখানেকের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ব্যবসায়ী সজিব বলেন, আমি বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক থেকে (সি সি) লোন নিয়ে ফার্মেসী ও ডাচ বাংলা এজেন্ট ব্যাংকিং ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিলাম।আমি এখন সর্বস্বান্ত।

ব্যাংকের টাকা কিভাবে পরিশোধ করবো? আমি প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতা চাই।

এদিকে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফাহমিদা হক আজ সোমবার দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে সরকারি বরাদ্ধের আশ্বাস দেন। এছাড়া ওসি স্বপন কুমার আইচ ঘটনাস্থলে ছুটে যান

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here