মতলব উত্তর উপজেলার রায়েরকান্দি খলিফাপাড়া গ্রামে আগুনে লেগে একটি বসতঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ৬ সেপ্টেম্বর রাত ৮টার সময় এ ঘটনা ঘটে। ঘর মালিক শহীদ ফকিরের অভিযোগ রাতের আধাঁরে কেউ আগুন জ্বালিয়ে দিয়েছে। সরেজমিনে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, হযরত আলী আর্সাদ লেংটার ছেলে শহীদ ফকিরের বসতঘরে কে বা কাহারা আগুন দেয়। চোখের পলকে চাল ও ঘরের কাড় পুড়ে যায়। আগুন দেখে শহীদ ফকির ও তার স্ত্রী ডাকচিৎকার দিলে আশ-পাশের লোকজন এসে অনেক চেস্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। অল্পের জন্যে রক্ষা পায় অনেকগুলো পরিবার ও পুরো খলিফাপাড়া গ্রামটি। মৃত আর্সাদ লেংটার ছেলে শহীদ ফকির বলেন, আমি ওই সময় আমার বাবার মাজারের সামনে বসে ছিলাম। হটাৎ দেখি ঘরের পিছনের পাশে উপর থেকে আগুনের গোলা এসে পড়ল। সাথে সাথেই ঘরের চালা পুড়ে গেল। এতে প্রায় এক লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। আমার ধারনা প্রেট্রোল মেরে কেউ আগুন দিয়েছে, না হয় এত দ্রæত আগুন ছড়াতো না। যারাই এ কাজটা করেছে তারা পরিকল্পিতভাবে করেছে। আমি প্রশাসনের কাছে সঠিক তদন্তের মাধ্যমে সুষ্ঠু বিচার চাই। এদিকে ঘটনার পর খবর পেয়ে মতলব উত্তর থানার এএসআই মোঃ গোলাম আজমসহ সঙ্গীয় ফোর্স ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ওসি মোঃ নাসির উদ্দিন মৃধা বলেন, ঘটনা দেখে ধারনা করা হচ্ছে পরিকল্পিত। ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করলে আইনগত প্রক্রিয়ায় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। শহীদ ফকিরের ছেলে খাদেম বাবুল হোসেন বলেন, কয়েকদিন আগে আমাকে গভীর রাতে ০১৮৭২৫৫৫৪০২ এই নাম্বার থেকে মুঠোফোনে কল করে হুমকি দেয়। পরে আমি জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে মতলব উত্তর থানায় জিডি করেছি। তিনি আরও বলেন, বিগত দিন ধরে অজ্ঞাতনামা কিছু লোক আমাকে ও আমার পরিবারের সদস্যদেরকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছে। জানিনা তারা কেন আমাদের সাথে শত্রæতা করছে। আমরা এখন জীবন ঝুঁকিতে আছি। সোমবার সকালে উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি মোহাম্মদ মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ মিলন মেম্বার ও গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ পরিদর্শন করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here