চাঁদপুর জেলার মতলব উত্তর উপজেলার বাগানবাড়ি ইউনিয়নের ধনাগোদা তালতলী গ্রামে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে পরিকল্পিত হামলায় চারজন আহত অবস্থায় চাঁদপুর সরকারি হাসপাতাল ভর্তি আছেন।

জানা যায়, গতকাল ১৪ ই ফেব্রুয়ারী রোজ রবিবার বিকাল ৩ ঘটিকার সময় উপজেলার ধনাগোদা তালতলী গ্রামের আলমগীর প্রধানের স্ত্রী নাজমা বেগম (৪০), মৃত আবদুল হামিদ প্রদানের ছেলে আলমগীর প্রধান (৪৮), আলমগীর প্রধানের ছেলে নাজমুল হোসেন (২৭), নাজমুল হোসেনের ছোট ভাই মোঃ নাঈম (২৪) এর ওপর পরিকল্পিত হামলা করেন একই গ্রামের মৃত আব্দুল খালেক সরকারের ছেলে কামাল হোসেন ওরফে পলু কামাল (৪৮), মোঃ সৌরভ (২২), নজরুল মুক্তারের ছেলে মোঃ রাকিব সহ অন্যান্য আরো লোকজন নিয়ে আলমগীর প্রধানের বাড়িতে পরিকল্পিতভাবে হামলা চালানো হয়।

উল্লেখ্য, আলমগীর প্রধানের স্ত্রী নাজমা বেগম চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন।

আলমগীর প্রধানের ছেলে নাজমুল হোসেন জানান- “মোঃ কামাল হোসেন ওরফে রুনু কামাল তার ভাই ভাতিজারা মিলে আমার পরিবারের উপর সন্ত্রাসী হামলা চালায়। এই হামলায় আমি সহ আমার মা-বাবা ও আমার ছোট ভাইকে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়িভাবে মেরে আহত করে। আমাদের ডাক চিৎকার শুনে এলাকার লোকজন আসলে তারা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। আমার মা এবং আমার বাবা চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছে। আমার মায়ের অবস্থা আশঙ্কাজনক। দেশীয় অস্ত্র দিয়ে আমার মার মাথার উপর কোপ মারে। প্রথমে আমার মাকে মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাই। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তারা আমার মাকে চাঁদপুর সরকারি হাসপাতালে রেফার করে। আমার মায়ের মাথায় ১৪ টি সেলাই করা হয়েছে। এ বিষয়ে আমরা মতলব উত্তর থানায় একটি অভিযোগ করেছি।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here