মতলব পৌরসভার বোয়ালিয়া বাজার থেকে বাপপুতের বাজার পর্যন্ত নির্নামাধীন রাস্তা পূণঃনির্মাণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে সংশ্নিষ্ট ঠিকাদরের বিরুদ্ধে। অনিয়মের অভিযোগে ওই ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানকে চিঠিও দিয়েছে সংশ্লিষ্ট দপ্তর। এদিকে রাস্তা নির্মাণে নিন্মমানের সামগ্রী ব্যবহারে ক্ষোভ জানিয়েছে এলাকাবাসী।

উপজেলা প্রকৌশলী কার্যালয় থেকে জানা যায়, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) এর মাধ্যমে ২০১৯-২০ অর্থ বছরে মতলব পৌরসভার বোয়ালিয়া বাজার থেকে বাপপুতের বাজার পর্যন্ত ১ কোটি ৩১ লাখ ৫৯ হাজার টাকা ব্যায়ে প্রায় ১৬শত মিটার দীর্ঘ রাস্তা নির্মাণের কাজ পায় লাকী এন্টার প্রাইজ। করোনার কারণে গত মার্চ মাস থেকে নির্মাণ কাজ বন্ধ থাকার পর আবারো শুরু হয় ওই রাস্তা নির্মাণের কাজ। এদিকে রাস্তা নির্মাণে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে নিন্মমানের সামগ্রী ব্যবহারের সত্যতা পেয়ে চিঠি প্রদান করে এলজিইডি।

সরেজমিনে দেখা যায়, ওই ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান রাস্তায় ব্যবহ্নত নিন্মমানের ইট ও খোয়া অপসারন না করে পূর্বের খোয়ার উপর কিছু নতুন খোয়া ফেলে তড়িঘড়ি করে কাজ এগিয়ে নেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে। নিন্মমানের ইট, খোয়া এবং সঠিক পুরুত্বে বালু ও খোয়ার মিশ্রণ না করেই চালিয়ে নিচ্ছেন নির্মাণ কাজ। এই বিষয়ে ওই রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী একাধিক ব্যক্তি জানান, বোয়ালিয়া বাজার থেকে বাপপুতের বাজার পর্যন্ত রাস্তাটি পাকা করণের দাবি জানিয়ে আসছিলেন তারা। মাটির এই রাস্তাটি দিয়ে বর্ষাকালে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী এবং বাজারের আসা ক্রেতা-বিক্রেতাদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হতো। মাটির রাস্তা থেকে পিচঢালাই রাস্তা নির্মাণে ঠিকাদার নিন্মমানের ইট ও খোয়া ব্যবহার করছে। এই নিয়ে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ওই রাস্তা দিয়ে যাতায়তকারী এলাকাবাসী।

এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী জাকির হোসেন মজুমদার বলেন, ওই ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানকে সঠিক ভাবে কাজ করার জন্য চিঠি প্রদান করা হয়েছে। আমরা তার কাছ থেকে সঠিক কাজ আদায় করে নেব, তা না হলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here