মতলব দক্ষিণের মতলব-বাবুরহাট ও নারায়নপুর, নায়েরগাঁও সড়কসহ বিভিন্ন সড়কের সিএনজি চালকদের কাছ থেকে শ্রমিক কল্যাণের নাম করে টাকা উত্তোলনের অভিযোগ করেছে সিএনজি চালকরা। এরই মধ্যে সিএনজি চালকরা ক্ষোভ প্রকাশ করে স্থানীয় প্রশাসনকে বিষয়টি অবহিত করেছেন। মতলব দক্ষিণ উপজেলা সিএনজি চালক সমবায় সমিতির সভাপতি মোঃ শাহপরানের নেতৃত্বে বিভিন্ন সিএনজি চালকদের কাছ থেকে গাড়ী প্রতি ১০টাকা করে আদায় করছে। বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের শুরুর কয়েকদিনের মাথায় স্থানীয় পুলিশ প্রশাসন টাকা উত্তোলন বন্ধ করে দিয়েছেন। কিন্তু অতিব দুঃখের বিষয় ১ অক্টোবর থেকে আবারও সিএনজি চালকদের কাছ থেকে ১০টাকা করে টাকা উত্তোলন শুরু করেছে। ফলে সিএনজি চালকদের মাঝে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। মতলব পানির ট্যাংকি মোড়ে নতুন রাস্তায় সমিতির নেতা মোঃ আলালসহ কয়েকজন মিলে এ টাকা উত্তোলন করছে। সিএনজি চালকদের কাছ থেকে জানা গেছে মতলব-নারায়নপুর, জোড়পুল, নায়েরগাঁও, মতলব ব্রীজসহ বেশ কয়েকটি রুটে প্রায় ৪ শতাধিক সিএনজি চলাচল করে থাকে। পুলিশ প্রশাসনকে ফাকি দিয়ে তাদের কাছ থেকে ১০ টাকা আদায় করছে। শ্রমিকলীগ নেতা সিএনজি চালক মোঃ জালাল উদ্দিন জানান, অবৈধভাবে আমাদের কাছ থেকে ১০ টাকা করে আদায় করছে। জেলার কোন স্থানে এ টাকা আদায় করেনা। আমি বিষয়টি মতলব দক্ষিণ থানাকে ও জেলার শ্রমিক ইউনিয়ন (২৫০৩) নেতৃবৃন্দদেরকে জানিয়েছি। মতলব দক্ষিণ উপজেলা অটোরিক্সা, সিএনজি চালক সমবায় সমিতির সভাপতি মোঃ শাহ পরানের সাথে এ বিষয়ে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি জানান, মার্চ মাস থেকে বন্ধ থাকলেও গত ১ অক্টোবর থেকে ১০টাকা করে আদায় করছি। এই টাকা শ্রমিকদের কল্যাণে ব্যয় করছি। জেলা অটোরিক্সা, টেম্পু, মিশুক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক সলিম গাজীর সাথে এ বিষয়ে মুঠোফোনে কথা বললে তিনি জানান, আমরা কোন সিএনজি চালকদের কাছ থেকে টাকা উত্তোলন করিনা। কোন উপজেলায় টাকা উত্তোলনের জন্য অনুমতিও দেইনি। মতলব দক্ষিণ থানার অফিসার ইনচার্জ স্বপন কুমার আইচ এর সাথে এ বিষয়ে মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি জানান, মতলব-বাবুরহাট, নারায়নপুর, নায়েরগাঁও, কাশিমপুর, জোড়পুল, মতলব সেতুর উপর কোন সিএনজি চালকের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করা যাবে না। কেউ এক টাকা চাঁদা চাইলে সাথে সাথে থানা পুলিশকে অবহিত করবেন। কোন চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসীদের এ মাটিতেই স্থান নাই। অপরাধীরা যে কেউ হোক না কেন, তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে। এদিকে, সাধারন সিএনজি চালকরা দাবী করেছেন চলতি বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের মধ্যে যাতে টাকা উত্তোলন করা না হয়। আমরা এ থেকে মুক্তি চাই। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here