চাঁদপুরে জেলায় একদিনে রেকর্ড সর্বোচ্চ ৮২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে শুক্রবার। এর মধ্যে চাঁদপুর সদরের ৩২ জন, হাইমচরের ১২, মতলব উত্তরের ১০ জন, হাজীগঞ্জের ৯জন, ফরিদগঞ্জের ৭জন, শাহরাস্তির ৬ জন, মতলব দক্ষিণের ৫জন ও কচুয়ার ১জন রয়েছেন।

মতলব উত্তরে আক্রান্তদের মধ্যে উপসর্গে মৃত হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা আঃ বারেক (৫৬)ও রয়েছেন।

সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে এসব এসব তথ্য জানানো হয়েছে। সূত্র জানায়,২৬ জুন শুক্রবার সকালে ১৯৯টি ও সন্ধ্যায় ৮১টি রিপোর্ট আসে। একদিনে মোট রিপোর্ট এসেছে ২৮০টি। যা এ যাবৎ কালের মধ্যে সর্বোচ্চ। এর মধ্যে ৮২টি রিপোর্ট করোনা পজেটিভ। বাকীগুলো নেগেটিভ। এ নিয়ে জেলায় মোট করোনায় আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়ালো ৭৫১জন। মৃত বেড়ে হলো ৫০জন।

চাঁদপুরে জেলায় বর্তমানে করোনায় আক্রান্ত ৭৫১ জনের উপজেলাভিত্তিক পরিসংখ্যান হলো : চাঁদপুর সদরে ৩০১জন, শাহরাস্তিতে ৯৩ জন, মতলব দক্ষিণে ৭৯জন, হাজীগঞ্জে ৭৭জন, ফরিদগঞ্জে ৭২জন, হাইমচরে ৫২জন, মতলব উত্তরে ৪৬জন ও কচুয়ায় ৩১জন।

জেলায় মোট ৫০জন মৃতের উপজেলাভিত্তিক পরিসংখ্যান হলো : হাজীগঞ্জে ১৪জন, চাঁদপুর সদরে ১৩জন, ফরিদগঞ্জে ৬জন, মতলব উত্তরে ৬জন, কচুয়ায় ৫জন, শাহরাস্তিতে ৪জন ও মতলব দক্ষিণে ২জন।

সিভিল সার্জন ডা. সাখাওয়াত উল্লাহ আরো জানান, শুক্রবার পর্যন্ত চাঁদপুর থেকে মোট নমুনার পাঠানো হয়েছে ৪১৩১টি। রিপোর্ট এসেছে ৩৭২৮টি। রিপোর্ট অপেক্ষমান ৪০৩টি। তিনি আরো জানান, জেলায় আক্রান্ত ৭৫১জনের মধ্যে ইতিমধ্যে সুস্থ হয়েছেন ২১৫জন। চিকিৎসাধীন আছেন ৪৮৬জন।

এখন পর্যন্ত আইসোলেশনে ভর্তিকৃত রোগীর সংখ্যা ৩০৮ জন। এর মধ্যে ইতিমধ্যে ছাড়পত্র পেয়েছেন ২৬৩জন। বর্তমানে আইসোলেশনে রোগীর সংখ্যা ৪৫জন। এছাড়া জেলায় মোট হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ব্যক্তির সংখ্যা ৬২৬৫ জন। এর মধ্যে ছাড়পত্র পেয়েছেন ৪১৩১জন। বর্তমানে হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন ২১৩৪জন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here