‘মানুষ মানুষের জন্য,জীবন-জীবনের জন্য’ তারই বাস্তবতার প্রমান দিলেন মানবতার ফেরিওয়ালা আলহাজ্ব আওলাদ হোসেন লিটন। তিনি হলেন মতলব পৌরসভার দুইবারের নির্বাচিত মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি।

শুক্কুর আলী, বয়স ৮ বছর। মায়ের গর্ভে থাকা অবস্থায় তার মাকে ফেলে বাবা চলে যায়। আদৌ কোন খোজ খবর নেয়নি তাদের পরিবারের। বর্তমানে পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের নবকলস গ্রামে একটি ভাড়া করা বাসায় থেকে বিভিন্ন বাসা বাড়িতে গিয়ে কাজ করে কোনো রকম জীবনযাপন করছে।

২১ মার্চ রোববার বিকাল ৩ টার দিকে পৌরসভার আশে-পাশে খাবারের জন্য মানুষের পিছুপিছু ঘুরছে।ঠিক ওই মুহুর্তে মতলব পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব মোঃ আওলাদ হোসেন লিটন তার অফিসের সিসি ক্যামেরায় শিশু বাচ্চার এমন করুণ দৃশ্য দেখে শিশু শুক্কুকে ডেকে মেয়রের অফিসে তাঁর চেয়ারের পাশে বসায়। শুনতে থাকেন শিশু শুক্কুরের সংসারের হালচাল।

পরে শিশুটিকে তাৎক্ষণিক মেয়র নিজ উদ্যেগে তার সংসারের জন্য চাল,ডাল,তৈল,আলুসহ অন্যান্য খাদ্যসামগ্রী কিনে শিশুটির হাতে দিয়ে বাসায় পৌঁছে দেন।

এমন মানবতার ফেরিওয়ালার মতো বহু কাজ বিগত করোনাকালীন সময়ে মতলব পৌরবাসীর জন্য করেছেন আওলাদ হোসেন লিটন।
আর তাই পৌরবাসী তাকে আবারো বিপুল ভোটে নির্বাচিত করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here