চাঁদপুর মতলব দক্ষিণ উপজেলা বিভিন্ন এনজিও কর্মচারীদের বিরুদ্ধে সরকারি বিধি নিষেধ সত্বেও মানসিক চাপ দিয়ে সাধারণ খেটে খাওয়া মানুষদের কিস্তি আদায়ের অভিযোগ উঠেছে।

সরকারি ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ৩০শে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কারো কাছ থেকে জোর করে কিস্তি আদায় ও মানসিক চাপ না দেওয়ার  বিধিনিষেধ জারি করেছে।

যদি কেউ ইচ্ছা কৃতভাবে কিস্তি পরিশোধ করতে চায় তাহলে সেটা নেওয়া যাবে।

কিন্তু সে বিধি নিষেধ অমান্য করে বিভিন্ন এনজিও কর্মীরা মানুষদের চাপ দিয়ে কিস্তি আদায়ের ব্যস্ত হয়ে উঠেছে।

এতে সাধারণ জনগণের মানসিক চাপ ও ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে।

নাম বলতে না চাওয়া এক ভোক্ত বোগী বলেন

নায়েরগাঁও গ্রামীন ব্যাংকের লোকজন

নাউজান গ্রামে হাজী বাড়ির কেন্দ্রে তারা কিস্তি আদায় করতে আসে প্রতি বুধবার ।যারা পারে তারা তো স ইচ্ছে কিস্তি দেয় আর যারা না দিতে পারে তাদের কে ফোন করে অনেক কর্কট ভাষায় কথা বলে এবং যে ভাবেই পারে কিস্তি পরিশোধ করতে বলে এমনি কি বলে যদি আপনি কিস্তি না দেন তাহলে আপনার বাড়ি আমারা গিয়ে বসে থাকবো এবং যারা নতুন কিস্তি নিতে আসছে তারা আপনার বাসায় গিয়ে বসে থাকবে।

তার পর যদি আমরা বলি সরকার না করছে জোর করতে তারা বলে তারা নাকি সরকার এর কাছ থেকে অর্ডার নিয়ে আসছে আপনাদের একার সরকার না সরকার আমাদের ও ।

আর একটু বেশি কথা বললে তারা বলে আপনি পুরুষ মানুষ আপনার সাথে কোন কথা নাই যেই মহিলা লোন নিছে আমরা তার কাছ থেকে কিস্তি আদায় করবো।

এখন যা অবস্হা মনে হয় মানুষ কিস্তি র জন্য আত্বহত্যা করবে।

এই করোনা কালে অনেকের কাছে খাবার নাই আর তারা সবাইকে কিস্তি পরিশোধ করার জন্য চাপ প্রয়োগ করছে।আমরা উপজেলা প্রশাসনের কাছে  এর  প্রতিকার চাই।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here